আজ বৃহষ্পতিবার ২৬ ডিসেম্বর ২০১৯ সারা দেশের বিভিন্ন স্থান হতে আংশিক সূর্যগ্রহণ দেখা গেছে।। আংশিক সূর্যগ্রহণ শুরু ঢাকার স্থানীয় সময় সকাল ৯ টা ২ মিনিটে। সূর্যগ্রহণের সর্বোচ্চ পর্যায় ছিল ঢাকার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ২৮ মিনিটে। গ্রহণ শেষ হয় দুপুর ১২টা ৬ মিনিটে।

দেশের অন্যতম বিজ্ঞান সংগঠন অনুসন্ধিৎসু চক্র সূর্যগ্রহণ পর্যবেক্ষণে দেশের বিভিন্ন স্থানে সূর্যগ্রহণ পর্যবেক্ষণ ক্যাম্প আয়োজন করে। শৌখিন জোর্তিবিদ আজহারুল হকের নেতৃত্বে অনুসন্ধিৎসু চক্রের কেন্দ্রীয় ক্যাম্পটি অনুষ্ঠিত হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে।

এ সময় সূর্যগ্রহণের ছবি ও বৈজ্ঞানিক তথ্য সংগ্রহ করা হয়। চক্রের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম জানান, বাংলাদেশে আংশিক সূর্যগ্রহণ দেখা গেলেও সৌদি আরব, কাতার, ওমান, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ভারত, শ্রীলঙ্কা, মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশ হতে বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ দেখা গেছে।

সূর্যকে কেন্দ্র কের পৃথিবী তার নিজ কক্ষপথে ঘুরছে, একই সাথে চাঁদ পৃথিবীর চারদিকে ঘুরছে। সূর্য ও পৃথিবীকে নিয়ে একটি তল কল্পনা করলে চাঁদ সাধারণত সেই তলে পৃথিবীর চারদিকে ঘোরে না। কিন্তু কোনো কোন সময়ে, অমাবস্যার সময়, পৃথিবী ও সূর্যের মাঝখানে চাঁদ সেই তলে একই সরল রেখায় চলে আসে। সূর্য চাঁদের আড়ালে চলে যায় এবং চাঁদের সঙ্কীর্ণ ছায়া তখন পৃথিবীর বুকে ভ্রমণ করে। সেই ছায়া যেসব জায়গার ওপর দিয়ে যায় সেখান থেকে মনে হয় সূর্য ধীরে ধীরে ঢেকে যাচ্ছে। ছায়ার কেন্দ্রে যেসব অঞ্চল পড়বে সেখান থেকে পূর্ণ সূর্যগ্রহণ দেখা যায়।বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণের সময় চাঁদের কৌণিক ব্যাস সূর্যের কৌণিক ব্যাস হতে অনেক কম থাকে। ফলে পূর্ণগ্রহণ হলেও চাঁদ কেবল সূর্যের কেন্দ্র ও কেন্দ্রের চারিদিককে ঢাকতে পারে। আর কেন্দ্রের বাইরে দেখা যাবে আংশিক সূর্যগ্রহণ।

এছাড়াও ঢাকার বাইরে অনুসন্ধিৎসু চক্র দেবিদ্বার শাখা কুমিল্লার এলাহাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে, অনুসন্ধিৎসু চক্র পঞ্চগড় শাখা বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম স্টেডিয়ামে সূর্যগ্রহণ পর্যবেক্ষণ ক্যাম্পের আয়োজন করে।

As the reader suggests, both baneful and baleful carry connotations of essay writer evil.